বাজারে আসছে সবচেয়ে হালকা ইলেকট্রিক বাইক, ঘন্টায় গতিবেগ ১২০ কিমি, দাম একদম হাতের নাগালে

পেট্রোল ডিজে’লের দাম বাড়ার জন্য বিশ্ব জুড়ে ক্রমশই জনপ্ৰিয় হচ্ছে ইলেক্ট্রিক গাড়ি। ইলেক্ট্রিক গাড়ি, মোটর সাইকেলের চাহিদা এই মুহূর্তে ভারতে বা পৃথিবীর অন্যান্য দেশে অনেকটাই বেশি। ফলে বিভিন্ন সংস্থা ইলেক্ট্রিক গাড়ি এবং মোটর সাইকেল লঞ্চ করছে। জার্মানির একটি স্টার্ট আপ কোম্পানি Novus খুব শীঘ্রই লঞ্চ করতে চলেছে একটি ইলেক্ট্রিক বাইক। তবে সাধারণ বাইকের মতো নয় এই ইলেক্ট্রিক বাইকটি। আর পাঁচটা বাইকের থেকে বেশ খানিকটা অন্যরকম Novus এর এই ইলেক্ট্রিক বাইক।

জার্মানির কোম্পানিটি ২০১৯ সালে প্রথম এই বাইকটির প্রোটোটাইপ প্রকাশ করেছিল। এই বাইকটির বিশেষত্ব হলো এই বাইকটির ওজন। মাত্র সাত কিলোগ্রাম ওজন এই বাইকটির।

সম্পূর্ণ কার্বন ফাইবার দিয়ে তৈরি করা হয়েছে এই বাইকটি। কোম্পানি জানাচ্ছে, এখন অর্ডার করলে ২০২২ সাল নাগাদ পাওয়া যাব’ে এই বাইকটি। Novus কোম্পানির ইলেকট্রিক বাইকের পুরো বডি ফ্রেম ও সমস্ত যন্ত্রপাতি যেমন চাকার রিম, ফর্ক সমস্ত কার্বন ফাইবারের তৈরি।

এর জন্য ব্যাটারি বাদ দিলে মাত্র সাত কিলোগ্রাম ওজন বাইকটির। ব্যাটারি ধরলে বাইকটির ওজন দাঁড়ায় ৭৫ কিলোগ্রামে, যা একটি সাধারণ বাইকের তুলনায় অনেকটাই কম। এই সি’’ঙ্গেল সিটার বাইকে একটি ১৮ কিলোওয়াট এর মোটর আছে যা 24 HP শক্তি উৎপন্ন করতে পারে। এই বাইকটির সর্বোচ্চ গতি প্রতি ঘন্টায় ১২০ কিলোমিটার এবং মাত্র তিন সেকেন্ডে বাইকটি ০-৫০ কিলোমিটার যেতে পারে। একবার ফুল চার্জে বাইকটি ১০০ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে পারে।

মাত্র এক ঘন্টা চার্জ দিলে এর ব্যাটারির ৮০ শতাংশ চার্জ হয়ে যাব’ে। বাইকটিতে অত্যাধুনিক কি লেস প্রযুক্তি আছে অর্থাৎ আপনার স্মা’র্টফোনের এনএফএসসি দ্বারা বাইক আনলক করতে পারবেন। বাইকটির দাম ৫০ হাজার ইউরো, যা একটি Tesla Model 3 ইলেক্ট্রিক গাড়ির সমান। তাই এত টাকা দিয়ে এই বাইকটি কেনা কতটা যুক্তিস’’ঙ্গত তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *