সাক্ষাৎ দেবী! করোনা আক্রান্ত শ্বশুরকে পিঠে নিয়ে চিকিৎসার উদ্দেশে রওনা দিল বউমা, নেটদুনিয়ায় প্রশংসার ঝড়

সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে রোজ কত রকমের ঘটনা আমা’দের চোখের সামনে উঠে আসে, বিশেষ করে এই করোনা পরিস্থিতিতে একাধিক ভাইরাল খবর সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে আমর’া দেখতে পাচ্ছি।

আবারো তেমনই এক ভাইরাল ঘটনা উঠে আসলো আমা’দের সামনে। আজকের যুগে যেখানে শ্বশুর-শাশুড়ির নিয়ে একান্নবর্তী পরিবার একপ্রকার দেখাই মেলা ভার,

সেখানেই নিজের করোনা আক্রা’ন্ত শ্বশুরকে বাঁ’চাতে তাকে পিঠে তুলে এই হাসপাতালে উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন বৌমা। ঘটনাটি ঘটেছে আসামে(Assam)। ৭৫ বছর বয়সী থুলেশ্বর দাসের (Thuleshwar Das) ছেলে সূরজ কর্মসূত্রে থাকে সুরাটে,

মেয়ে এবং ছেলের বউ নীহারিকাকে (Niharika) নিয়ে থাকতেন থুলেশ্বর বাবু। মেয়ের অবর্তমানে ফুলেশ্বর বাবুর সমস্ত দেখভাল করতেন বৌমা নীহারিকা।

থুলেশ্বর বাবু করোনা আক্রা’ন্ত হওয়ার পর চিকিৎসকেরা পরামর’্শ দেয় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করানোর জন্য। বাড়ি থেকে কিছুটা দূর হাসপাতালে শশুর মশাইকে নিয়ে যাওয়ার জন্য কোনও সাহায্য পায়নি নীহারিকা,

তাই শ্বশুরমশাইয়ের প্রাণ বাঁ’চাতে বাধ্য হয়ে নিহারিকা নিজের কাঁধেই তুলে নেন দায়িত্ব। শশুর মশাই কে পিঠে তুলে হাসপাতালের উদ্দেশ্যে রওনা দেন বৌমা, যার ফলে নীহারিকা নিজেও করোনা আক্রা’ন্ত হয়ে পড়েন।

নিহারিকা যখন থুলেশ্বর বাবুকে স্থানীয় স্বাস্থ্য আধিকারিক জেলার কোভিড কেয়ার সেন্টারে নিয়ে যান তখন চিকিৎসকেরা বাড়িতে রেখেই থুলেশ্বর বাবুর চিকিৎসার পরামর’্শ দেন ৷

কিন্তু তখন শশুরকে সুস্থ করেই বাড়ি নিয়ে যাওয়ার সংকল্পে নাছোড়বান্দা নীহারিকা। অবশেষে তার জোরাজুরিতেই চিকিৎসকেরা বাধ্য হন থুলেশ্বর বাবুকে হাসপাতালে ভর্তি করতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *