২২ বছর বয়সের মধ্যে যুবতীদের বিয়ে না হলে মেয়েদের যে ৭ টি ভ’য়’ঙ্কর সমস্যার মুখোমুখি হতে হয়, জেনে নিন!

এই সমাজে ছেলে এবং মেয়েদের আলাদা সম্মান ,অধিকার থাকা উচিত ।।কিন্তু এমনটা হয় না ।।মেয়েদেরকে এখনো আলাদা চোখে চোখে দেখা হয়ে থাকে । সেটা বাড়ির ক্ষেত্রে ’হতে পারে বা বাইরে ক্ষেত্রে ’হতে পারে ।

কিন্তু সমাজ গঠনের ক্ষেত্রে মেয়েদের অবদান অনেকখানি । সেটা নতুন করে বলার অ’পেক্ষা রাখে না কিন্তু তবুও যে বিষয়গু’লি সবথেকে বেশি মেয়েদেরকে সম্মুখীন ’হতে হয় সেটি হলো বিয়ে ।

যদি কোন মেয়ের বয়স ২২ বছর অতিক্রম করে যায় আর তার প্রয়োজন তার বিয়ে না হয় তাহলে একাধিক সমস্যার সম্মুখীন ’হতে হয় তাকে । কি রকম ধরনের সমস্যা আজকের প্রতিবেদনে তুলে ধরব সেগু’লো।

প্রথমত যদি কোনো কারণে বাড়ির মা-বাবারা তার মেয়েকে ২২ বছরের পরেও বিয়ে দিতে অক্ষম থাকে তাহলে তাদেরকে হা-হুতাশ করতে দেখা যায় । কখনো কখনো এতটাই চিন্তিত হয়ে পড়েন তারা যে ছেলে মেয়েরা নিজেদেরকে অ-প-রাধী হিসেবে মনে করে।

বয়স হয়ে যাওয়ার সাথে সাথে যদি বিয়ে না হয় তাহলে আপনি কোন অনুষ্ঠান বাড়ি বা উৎসবে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করতে পারবেন না । কারণ পাড়া-প্রতিবেশীরা কখনোই এগু’লিকে ভালো চোখে দেখেনা ।

এবং নানান ধরনের প্রশ্ন করতে থাকে আপনার বিয়ের বয়স নিয়ে ।।যার ফলে আপনি অস্বস্তি তে পড়বেন । অবিবাহিত মহিলাদের কে সবসময় খারাপ চোখে দেখা হয়ে থাকে ।

তার নামে নানান রকমের কুরুচিকর মন্তব্য করা হয় এবং দূর্নাম রটানো হয় যার ফলে তার ভাবমূর্তি প্রতিনিয়ত নিচে নামতে শুরু করে । সঠিক সময় যদি আপনার বিয়ে না হয় তাহলে আপনি কোন ধরনের পোশাক

পরবেন সেটাও নির্বাচন করে দেয় অন্য কেউ । অর্থাৎ যদি আপনি আপনার পছন্দের মতন জমকালো কোন পোশাক পড়ে থাকেন তাহলে কিন্তু আপনাকে নিয়ে সমালোচনা হবে অনেকখানি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *