প্রে’মিক হারালেন তসলিমা নাসরিন!

করো’নার কারণে লকডাউনে থাকা বাংলাদেশ থেকে নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন প্রে’মিক হারিয়েছেন। এমনটি দাবি করে বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) তার ফেরিফায়েড ফেসবুক পেজে পোস্ট করেন। তবে ভা” রতে বসবাসকারী এ লেখক তার প্রে’মিকের নাম জানাননি। এর আগেও তার এ প্রম বিষয়ে কিছু উল্লেখ করেননি। ফেসবুক পোস্টে তসলিমা জানান- ‘আমা’র প্রে’মিক-ভাগ্য খুব খা’রাপ। একটা যেন তেন প্রে’মিক ছিল, সেটিকে লকডাউনের পর বিদেয় করতে হয়েছে। আমি ঘর থেকে বেরোচ্ছি না, এ তার সইছিল না। সে তার চাকরি করতে

শারীরিক চাহিদা থাকলে পূরণ করব, বিয়ের দরকার নেই: শ্রীলেখা!!

কলকাতার জনপ্রিয় অ’ভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। আবেদনময়ী অ’ভিনেত্রীর পাশাপাশি কমেডি শো ‘মীরাক্কেল’-এর বিচারক হিসেবেও রয়েছে তার জনপ্রিয়তা। অ’ভিনয় আর শরীরী সৌন্দর্যে দুই বাংলাতে রয়েছে তার গ্রহণযোগ্যতা। শ্রীলেখা ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন শিলাদিত্যকে। তাদের ঘরে রয়েছে এক কন্যা সন্তান। দীর্ঘ দিনের সংসার জীবনের পর মানসিক দ্বন্দ্বের কারণে মে’য়েকে নিয়ে আলাদা থাকছেন শ্রীলেখা। সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এই অ’ভিনেত্রী তার বিয়ে ও প্রে’ম নিয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন। শ্রীলেখা বলেন, ‘বিয়ে বা লিভ টুগেদার কোনোটাই আমি করব না। একা

বিদায় বেলায় ইউএনওকে জড়িয়ে ধরে কাঁদলেন সাধারণ মানুষ

বিদায় নিলেন নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নাহিদা বারিক। ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব নেয়ার পর দক্ষতার স’ঙ্গে তা পালনের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের স’ঙ্গে মিশে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন তিনি। সে কারণে বিদায় বেলায় সাধারণ মানুষ অনুষ্ঠান মঞ্চে এসে তাকে জড়িয়ে ধরে কান্নায় ভেঙে পড়েন। আর ইউএনওর কান্নায় অনুষ্ঠানে হৃদয় বিদারক পরিবেশ সৃষ্টি হয়। ম’ঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে উপজেলা মিলনায়তনে নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাহিদা বারিকের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এমন চিত্র দেখা যায়। ইউএনও